জমি নিয়ে বিরোধে কৃষককে হত্যার অভিযোগ, আটক ৪

0

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আমজেদ গাজী (৬৫) নামের এক কৃষককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের দেয়াড়া মাঠপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আমজেদ গাজী (৬৫) দেয়াড়া মাঠপাড়া এলাকার মৃত ওমর আলী গাজীর পুত্র।এ ঘটনায় পুলিশ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করেছে।

সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো.আফজাল হোসেন, কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর খায়রুল কবিরসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অন্যান্য টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

খোরদো পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই মামুনুর রহমান জানান, ‘উত্তরাধিকারসূত্রে পাওয়া পুকুরসহ ১০ কাঠা জমি নিয়ে বিরোধ ছিল গাজী পরিবারের দুই চাচাতো ভাই ছাত্তার গাজীর সাথে আনছার আলী গাজীর। জমিটি নিয়ে মামলা থাকায় এর একক মালিকানার বিষয়ে আদালতের নিষেধাজ্ঞাও ছিল। ছাত্তার গাজির আপন ভাই আমজেদ গাজী। মঙ্গলবার বাড়ির সামনে বিরোধপূর্ণ সেই জমির পুকুরে গেলে আমজেদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তার চাচাতো ভাই আনছার গাজীর। পরে আনছারের পরিবার সদস্যরাও ঝগড়ায় জড়িয়ে যায়। বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে মারপিটের শিকার হন আমজেদ গাজী। তাকে কলারোয়া হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

এসআই মামুনুর রহমান আরও জানান, এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন ছাকাত গাজীর পুত্র আনছার গাজী (৬৮), তার স্ত্রী ফুলমতি (৫০), পুত্র দেলোয়ার হেসেনের স্ত্রী রিতা খানম (২৩) ও আরেকপুত্র শাহ আলম গাজীর স্ত্রী মোছা.ফাহিমা খাতুন (২২)।

দেয়াড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান মফে জানান, ‘আমজেদ গাজী ও আনছার গাজী আপন চাচাতো ভাই। দু’জনই বয়স্ক মুরব্বি। বিরোধপূর্ণ জমি নিয়ে আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় এক ভাই জমিতে গেলে আরেক ভাই বাঁধা দেন। পরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধাক্কাধাক্কিতে মাটিতে পড়ে গিয়ে আমজেদ গাজী মারা যান।’

কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর খায়রুল কবির জানান, ‘এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের পরিবারের অভিযোগ প্রাপ্তি সাপেক্ষে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এদিকে, নিহতের ছেলে সুমন জানান, বাড়ির পাশের মাত্র ১০ কাঠা জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। আদালতে এ বিষয়ে মামলাও চলমান।