মিয়ানমারে ২৩ হাজার বন্দিকে মুক্তি

4

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক
মিয়ানমারে ২৩ হাজার ১৮৪ জন বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে দেশটির জান্তা সরকার। শনিবার দেশটির নতুন বছরে সাধারণ ক্ষমার অধীনে এই বন্দিদের মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

কারা বিভাগের একজন মুখপাত্র বলেছেন, গত ১ ফেব্রুয়ারি সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে গণতন্ত্রপন্থীদের গ্রেপ্তার করা হলেও মুক্তি প্রাপ্তদের মধ্যে তাদের কয়েকজনও থাকতে পারে। খবর রয়টার্সের

শনিবার মিয়ানমারে ঐতিহ্যবাহী নববর্ষের প্রথমদিন। দেশটিতে নববর্ষ নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয়। তবে এবছর গণতন্ত্রপন্থী নেতাকর্মীরা এসব উৎসব বাতিল করেছেন। তার পরিবর্তে দেশটির নেত্রী অং সান সু চির নির্বাচিত সরকারকে সামরিক বাহিনীকে ক্ষমতাচ্যুত করার পরে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের অভিযানের দিকে মনোনিবেশ করার আহ্বান জানিয়েছে তারা।

দেশটির মানবাধিকার সংস্থা অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স (এএপিপি) জানিয়েছে, সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে সু চিসহ ৩ হাজার ১৪১ জন বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে।

কারা বিভাগের মুখপাত্র কিয়া তুন ও জানান, যারা মুক্তি পেয়েছেন তাদের বেশিরভাগই সেনা অভ্যুত্থানের আগে থেকে কারাগারে ছিলেন। তবে এদের মধ্যে কয়েকজন আছেন যারা অভ্যুত্থানের পর থেকে কারাগারে ছিলেন। তাদের সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের অভিযোগে আটক করা হয়।

এএপিপি জানায়, এর আগে জান্তা সরকার যখন হাজার হাজার বন্দিকে মুক্তির কথা জানায় তখন তারা সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভের সঙ্গে জড়িত আছে এমন ৮৩২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। এদের মধ্যে অভিনেতা, গায়ক ও সেলিব্রেটিও রয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাদের তিন বছরের জেলও হতে পারে।